29 বার প্রদর্শিত
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (29 পয়েন্ট)  
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (737 পয়েন্ট)  
দাঁত ব্যাথার কারণ
দাঁত ব্যথার প্রধান কারণ হলো ডেন্টাল ক্যারিজ
বা দাঁত ক্ষয় রোগ। দাঁত ক্ষয় রোগে সাধারণত
দাঁতের কোনো অংশে গর্ত হয়ে যায় ও দাঁত ব্যথা
করে। দাঁত ব্যথার অন্যান্য কারণগুলো হচ্ছে
আক্কেল দাঁতের সমস্যা, মাঢ়িতে ইনফেকশন, পুঁজ
হওয়া, আঘাতের কারণে দাঁতে ফাটল, ক্যারিজ
ইত্যাদি।
বলা নেই কওয়া নেই হঠাৎ শুরু হয়ে গেলো দাঁতের
ব্যথা। আর আপনি ব্যথায় কাতরানো ছাড়া অন্য
কিছু করতে পারছেন না মোটেও। দ্রুত দাঁতের
ডাক্তার বা ডেন্টিস্টের কাছে যাওয়া খুবই জরুরী।
কিন্তু তখনই কি করে সম্ভব? তার দারস্থ হতেও
তো অন্তত কিছুটা সময় দরকার। তখনই কি
করণীয়? জেনে নিন সেসবই। কিছু ঘরোয়া উপায়
জেনে নিলে এই সময় খানিকটা সময়ের জন্য মিলবে
স্বস্তি। অবসান ঘটবে ব্যথার।
(1) দারচিনি:-
এসময়ে স্বস্তি দিতে পারে দারচিনি। এর মধ্যে
অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল আর ব্যথা কমানোর গুন
আছে ভরপুর। শুধু ব্যথা কমানোই নয়, এছাড়াও
দারচিনি দাঁতকে আরো মজবুত করে তোলে। এইসব
কারণে দারচিনি দাঁত আর মাড়ির জন্য খুবই
উপকারী। দাঁত ব্যথা করলে একটা দারচিনির টুকরো
নিয়ে যে অংশে ব্যাথা হছে সেই অংশের উপর রাখুন।
হাল্কা করে চিবুতে থাকুন আর দারচিনি থেকে যে
রসটা বেরোচ্ছে তা কিছুক্ষণ দাঁতের অংশে রেখে
গিলে ফেলুন। কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখবেন ব্যথা
অনেকটা কমে আসছে।
(2)লবণ পানিঃ-
একেবারে সাধারণ এবং প্রচলিত এই প্রক্রিয়া
আসলেই কার্যকর। এক গ্লাস গরম পানিতে বেশি
করে লবণ গুলে কুলকুচি করুন যতক্ষণ সম্ভব।
দাঁতের ব্যথার কারন হিসেবে যদি কোনও জীবাণু
থেকে থাকে তবে তা দূর হবে। এছাড়াও মাড়িতে রক্ত
চলাচল ভালো করে দেয় এবং সাময়িকভাবে দাঁত
ব্যাথা কমে আসে। তবে এই লবণ পানি খেয়ে
ফেলবেন না যেন। কুলকুচি করে ফেলে দেবেন।
(3)লবঙ্গঃ-
যে দাঁতটা ব্যথা করছে, তার ওপরে বা পাশে(যেখানে
ব্যাথা) একটা লবঙ্গ রেখে দিন। মাড়ি আর দাঁতের
মাঝে বা দুই চোয়ালের মাঝে এই লবঙ্গ চেপে রাখতে
পারেন যতক্ষণ না ব্যথা চলে যায়। লবঙ্গের তেল
ব্যবহার করতে পারেন তবে দুই-এক ফোঁটার বেশি
নয়। লবঙ্গ গুঁড়োর সাথে পানি বা অলিভ অয়েল
মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করেও লাগাতে পারেন।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (6,695 পয়েন্ট)  
গোলমরিচের মধ্যে লবণ মিশিয়ে ব্যবহার করলে ব্যথা কমতে অনেকটা সাহায্য হয়। এ দুটির মধ্যেই আছে ব্যাকটেরিয়ারোধী, প্রদাহরোধী ও অ্যানালজেসিক উপাদান।
সমপরিমাণ গোলমরিচ ও লবণ নিন। এর মধ্যে কয়েক ফোঁটা পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
আক্রান্ত দাঁতে সরাসরি পেস্ট লাগান এবং কয়েক মিনিট রাখুন।
কয়েক দিন নিয়মিত এটি করুন।
আকম আজাদ প্রশ্ন অ্যানসারসের সাথে আছেন বিশেষজ্ঞ হিসাবে। অজানার যেকোনো বিষয়েই জানতে প্রচণ্ড আগ্রহী এবং আত্মবিশ্বাসী। প্রশ্ন ডট কমকে বাছাই করে নিয়েছন জ্ঞান অর্জন ও জ্ঞান বিতরণের মাধ্যম হিসেবে। স্বপ্ন দেখেন একজন উদীয়মান বক্তা ও কলম সৈনিক হওয়ার। এই অভিপ্রায়ে সামনের দিকে অগ্রসর হতে সকলের নিকট দোয়াপ্রার্থী।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
22 এপ্রিল "রূপচর্চা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শামীম মাহমুদ (7,632 পয়েন্ট)  
1 উত্তর
03 মে "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Siddique (3,671 পয়েন্ট)  

20,354 টি প্রশ্ন

19,219 টি উত্তর

2,669 টি মন্তব্য

1,172 জন সদস্য



প্রশ্ন অ্যানসারস এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এবং আপনি অন্য জনের প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য।

  1. অনিক আহমেদ

    609 পয়েন্ট

  2. Yasin Arafath

    349 পয়েন্ট

  3. Abusayid

    228 পয়েন্ট

  4. অাতিকুর রহমান আতিক

    210 পয়েন্ট

  5. R.A.rupu SR(pl)

    140 পয়েন্ট

...